ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম

0
64
ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম
ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম

জনপ্রিয়তার অন্যতম ব্যাংক হল ডাচ-বাংলা ব্যাংক, আপনি কি ডাচ বাংলা ব্যাংকে একটি একাউন্ট খুলতে চান তাহলে চলুন জেনে নেই ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম এবং একাউন্ট খুলতে কি কি তথ্য আপনাকে ব্যাংক কর্তৃপক্ষকে দিতে হবে।

 

বাংলাদেশের ব্যাংকিং খাতে ডাচ বাংলা ব্যাংক খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে বাংলাদেশ ও নেদারল্যান্ডের যৌথ উদ্যোগে ১৯৯৬ সালে এই ব্যাংকে যাত্রা শুরু হয়।

এবং পরবর্তীতে দেশে সর্ববৃহৎ এটিএম নেটওয়ার্ক হিসেবে পরিচয় লাভ করে।

ব্যাংকিং কার্যক্রমের দিক থেকে বাংলাদেশ ডাচ বাংলা ব্যাংক লিমিটেড সম্পূর্ণ নিরাপদ। গ্রাহকরা ডাচ-বাংলা ব্যাংকের সকল ব্যাংকিং কার্যক্রম ঘরে বসে সম্পূর্ণভাবে ব্যবহার করতে পারবেন। ডাচ বাংলা ব্যাংক সম্পর্কিত তথ্যগুলোর নিচে বর্ণনা করা হলো।

ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম

ডাচ বাংলা ব্যাংকে একাউন্ট খোলার জন্য আপনার জাতীয় পরিচয় পত্রের কপি ২ কপি ছবি।

নমিনির জাতীয় পরিচয় পত্র ও এক কপি ছবিসহ নিকটস্থ ডাচ বাংলা ব্যাংকের শাখা অথবা ফাস্ট ট্রাক অফিসে যান।

একাউন্ট খোলার ফরম পূরণ করে কাগজপত্র ও প্রাথমিক ডিপোজিট জমা দিয়ে অ্যাকাউন্ট ওপেন করে সচল করতে পারবেন।

অ্যাকাউন্ট ওপেনিং ফরম পূরণ করে জমা দেওয়ার পর দায়িত্বরত অফিসার আপনার একাউন্ট খুলে দিবেন।

এরপর আপনাকে ব্যাংকের ন্যূনতম জমার পরিমাণ ক্যাশ কাউন্টারে জমা দিয়ে একাউন্ট সচল করতে হবে।

ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার জন্য একজন সুপারিশকারী প্রয়োজন ব্যাংকের যেকোনো অ্যাকাউন্ট হোল্ডার সুপারিশকারী হিসেবে বিবেচিত হবে।

এ ক্ষেত্রে ব্যাংক কর্মকর্তা আপনাকে সহযোগিতা করতে পারেন। যদি আপনার পরিচিত কোন সুপারিশকারী না থাকে সেক্ষেত্রে।

ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার আগে অবশ্যই এই ব্যাংক সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে হবে।

এবং ব্যাংক একাউন্ট খোলার আগে আপনি কোন ধরনের একাউন্ট খুলতে চান সেটি আপনাকে সিলেক্ট করতে হবে।

সাধারণত ডাচ বাংলা ব্যাংকের ৭ ধরনের একাউন্ট খোলা যায়।

ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম

ডাচ বাংলা ব্যাংকে সেভিংস একাউন্টে কেউ খুলতে পারবে তবে স্টুডেন্ট শুধুমাত্র স্টুডেন্টরা বলতে পারবেন।

ডাচ বাংলা ব্যাংক সেভিংস একাউন্ট খোলার নিয়ম

ডাচ বাংলা ব্যাংক সেভিং অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য আপনার প্রয়োজন হবে জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি।

২ কপি ছবি এবং আপনার নমিনির জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি ।

এবং এক কপি ছবি এগুলো সহ নিকটস্থ ডাচ বাংলা ব্যাংকের শাখার গিয়ে ফরম পূরণ করে ডিপোজিট জমা করে একাউন্ট খুলতে পারবেন।

কর্মরত অফিসার আপনার অ্যাকাউন্ট খুলে দেওয়ার পর আপনাকে প্রাথমিক জমার পরিমাণ কাউন্টারে জমা দিতে হবে।

একাউন্ট চালু হওয়ার ২/৩ দিনের মধ্যে আপনাকে একটি এটিএম কার্ড প্রদান করা হবে ।

ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খুলতে কি কি লাগে

 

  • জাতীয় পরিচয়পত্রের ফটোকপি ।
  • বয়স ১৮ বছরের বেশি হতে হবে ।
  • পাসপোর্ট সাইজের সদ্য তোলা ৪ কপি রঙিন ছবি ।
  • নমিনির ভোটার NID ফটোকপি এবং দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের ছবি ।
  • ন্যূনতম জমার পরিমাণ 500 টাকা ।
  • ইউটিলিটি বিলের ফটোকপি প্রয়োজন হতে পারে।
  • ব্যবসায়ীদের ক্ষেত্রে ট্রেড লাইসেন্সের প্রয়োজন হবে।
  • DBBL ব্যাংকে একাউন্ট আছে এমন একজন ব্যক্তির সুপারিশ দরকার হবে।

 

উল্লিখিত ডকুমেন্টস গুলো দিয়ে DBBL ব্যাংকে খুব সহজেই একটি সেভিংস একাউন্ট চালু করতে পারবেন।

ডাচ বাংলা ব্যাংক সেভিংস একাউন্ট এর সুবিধা 

ডাচ-বাংলা ব্যাংক সেভিং একাউন্ট এর সুবিধা গুলো হলো: 

 

  • খুব সহজেই সেভিংস একাউন্টে চেক ইস্যু ।
  • সেভিংস একাউন্টে ডেবিট কার্ড অথবা ক্রেডিট কার্ড গ্রহণ করতে পারবেন ।
  • ব্যাংকের অন্য যেকোনো ব্রাঞ্চে টাকা ট্রান্সফার করতে পারবেন ।
  • ইন্টারনেট ব্যাংকিং এবং এসএমএস ব্যাংকিং এর সুবিধা ।
  • ডিজিটাল ব্যাংকিং সেবা।
  • ডাচ বাংলা ব্যাংক লোন পরিষেবা গ্রহণ ।
  • ডিপিএস খুলতে পারবেন ।
  • লিমিটেড ও আনলিমিটেড লেনদেন।

 

ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার ফরম

ডাচ বাংলা ব্যাংকে যেকোনো ধরনের একাউন্ট খোলার জন্য অবশ্যই একটি ফর্ম সংগ্রহ করতে হবে।

আপনারা চাইলে নিকটস্থ শাখা থেকে এই ফর্মটি সংগ্রহ করতে পারেন। অথবা ডাচ-বাংলা ব্যাংকের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে ফরমটি ডাউনলোড করে নিতে পারেন।

ডাচ বাংলা ব্যাংকে একাউন্ট খোলার যে ফর্মটি পূরণ করতে হবে।

এটি ডাউনলোড করতে Download form এই লিংকে ক্লিক করুন ।

এখান থেকে ফরমটি পিডিএফ ফাইল হিসেবে ডাউনলোড করে, পরবর্তীতে এটিকে প্রিন্ট আউট করে ব্যবহার করতে পারবেন।

স্টুডেন্টস ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম

ডাচ বাংলা ব্যাংকে স্টুডেন্ট একাউন্ট খোলার জন্য একইভাবে নিকটস্থ ডাচ বাংলা ব্যাংকের যে কোন ব্রাঞ্চ থেকে একটি স্টুডেন্ট একাউন্ট খোলার ফরম সংগ্রহ করে নিবেন।

এবং প্রয়োজনীয় তথ্যগুলো প্রদান করে উত্ত ব্যাংকের শাখায় জমা দিলে কিছুক্ষণের মধ্যে আপনার স্টুডেন্ট একাউন্ট ওপেন হয়ে যাবে।

ব্যাংক থেকে টাকা উঠানোর জন্য একটি ইনস্ট্যান্ট এটিএম কার্ড প্রদান করা হবে।

এবং পরবর্তীতে আপনি ব্যাংক থেকে চেক বই সংগ্রহ করে নিতে পারবেন।

সাধারণত ডাচ-বাংলা ব্যাংকের স্টুডেন্ট একাউন্ট শুধুমাত্র ছাত্র-ছাত্রীরা খুলতে পারবে।

ছাত্র-ছাত্রী ব্যতীত অন্য কেউ ডাচ বাংলা ব্যাংকের স্টুডেন্ট একাউন্ট খুলতে পারবেন না।

স্টুডেন্ট একাউন্ট খোলার প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস

 

  • জাতীয় পরিচয় পত্র অথবা জন্ম নিবন্ধন কপি ।
  • শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের আইডি কার্ড ।
  • পাসপোর্ট সাইজের দুই কপি সদ্য তোলা রঙিন ছবি ।
  • নমিনির ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি ও ছবি।
  • আবেদনকারীর বয়স 18 বছরের কম হলে ।
  • সে ক্ষেত্রে গার্ডিয়ানের জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি ও ছবি ।
  • একটি সুপারিশকারী একাউন্ট যার ইতিমধ্যে ডাচ-বাংলা ব্যাংকে একটি একাউন্ট রয়েছে। 
  • সচল একটি মোবাইল নাম্বার ।
  • প্রাথমিক পরীক্ষা অথবা উচ্চমাধ্যমিক এবং 
  • এসএসসি পরীক্ষার সার্টিফিকেট বিশেষ ক্ষেত্র হতে পারে।
  • লিমিটেশনের অধিক লেনদেন করার জন্য ব্যবসায়িক ট্রেড লাইসেন্স প্রয়োজন হতে পারে ।
  • এটা শুধুমাত্র ব্যবসায়ী স্টুডেন্টদের ক্ষেত্রে।

 

ডাচ বাংলা ব্যাংকে স্টুডেন্ট একাউন্ট খোলার পূর্বে অবশ্যই উক্ত ডকুমেন্টগুলো সংগ্রহ করে নিবেন। ডকুমেন্টগুলো সংগ্রহ করে নিকটস্থ ডাচ-বাংলা ব্যাংকের শাখায় গিয়ে একটি স্টুডেন্ট একাউন্ট ওপেন করতে পারবেন।

স্টুডেন্ট একাউন্টে সুবিধা

 

  • ডাচ বাংলা ব্যাংকে স্টুডেন্ট একাউন্টের সুবিধা গুলো হলোঃ
  • কোনো ফ্রি ছাড়াই ইনস্ট্যান্ট এটিএম কার্ড ।
  • ডাচ বাংলা ব্যাংকের যেকোনো ব্রাঞ্চ থেকে টাকা জমা উত্তোলন ।
  • এটিএম বুথ থেকে খুব সহজেই টাকা উত্তোলন করতে পারবে ।
  • ডাচ বাংলা ব্যাংকের স্টুডেন্ট একাউন্ট আপনারা লাইফটাইম ব্যবহার করতে পারবে।
  • ইন্টারনেট ব্যাংকিং ব্যবহার করতে পারবেন ।
  • 2-Factor Authentication ব্যবহার করতে পারবেন।
  • রকেট একাউন্ট এর সাথে ডাচ বাংলা ব্যাংকে স্টুডেন্ট একাউন্ট লিংক করতে পারবে।
  • সেভিংস একাউন্টের থেকে স্টুডেন্ট একাউন্টে ইন্টারেস্ট বেশি পাবেন।

 

স্টুডেন্ট একাউন্টে ইন্টারেস্ট রেট সম্পর্কে সঠিক তথ্য প্রদান করা সম্ভব নয়। ডাচ বাংলা ব্যাংক হেল্প নাম্বারে যোগাযোগ করে এ সম্পর্কে জেনে নিতে পারেন। লেখাটির শেষের দিকে ডাচ বাংলা ব্যাংক এর হেল্প নাম্বার গুলো দেওয়া রয়েছে।

স্টুডেন্ট একাউন্টের অসুবিধা

 

  • ডাচ বাংলা ব্যাংকের স্টুডেন্ট একাউন্টে সুবিধার পাশাপাশি অসুবিধা রয়েছেঃ
  • স্টুডেন্ট একাউন্ট কোন ধরনের চেক প্রদান করা হয় না 
  • তবে নতুন আপডেট চেক প্রদান করার ব্যবস্থা চালু হতে পারে 
  • লেনদেনের ক্ষেত্রে দেখলে লিমিটেশন রয়েছে। 
  • পাঁচ হাজার টাকার উপরে ব্যালেন্স থাকলে ৬ মাস অন্তর 
  • ১০০ টাকা মেইনটেন্স ফি এবং ১৫ টাকা ভ্যাট প্রদান করতে হবে।
  • এক বছরে আপনার একাউন্টের ব্যালেন্স একসাথে 
  • এক লক্ষ টাকার বেশি হলে ১৫০ টাকা ফ্রি প্রদান করতে হবে।

 

আরো পড়ুন: ইসলামী ব্যাংক লোন পদ্ধতি 

ডাচ বাংলা স্টুডেন্ট এর জন্য ব্যাংকে তেমন কোন অসুবিধা নেই। স্টুডেন্ট এর জন্য ব্যাংকে অসুবিধা থেকে সুবিধা অনেক বেশি।

ডাচ বাংলা ব্যাংক লোন পদ্ধতি

মূলত ডাচ বাংলা ব্যাংকে একজন গ্রাহক হিসেবে আপনি চাইলে আপনার সুবিধামত লোন সেবা উপভোগ করতে পারবেন। তবে কি রকম কাগজের ক্ষেত্রে কি রকম লোন প্রযোজ্য হবে, সেগুলো দেখে নেয়া প্রয়োজন।

ডাচ-বাংলা ব্যাংক থেকে তিনটি ভিন্ন খাতে আপনি লোন সেবা গ্রহণ করতে পারবেন। তার মধ্যে রয়েছে।

 

  • ডাচ বাংলা ব্যাংক হোম লোন 
  • ডাচ বাংলা ব্যাংক পার্সোনাল লোন
  • ডাচ বাংলা ব্যাংক গাড়ি লোন

 

ডাচ বাংলা ব্যাংকের ব্যালেন্স দেখার নিয়ম

একটি ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট ওপেন করার পরে সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ হল একাউন্টের ব্যালেন্স চেক করা।

ডাচ বাংলা ব্যাংকে একাউন্ট ওপেন করার পরে আপনি অনেক পদ্ধতিতে আপনাদের একাউন্টের ব্যালেন্স চেক করে দেখতে পারেন।

 

  • ইন্টারনেট ব্যাংকিং এর মাধ্যমে 
  • ডাচ-বাংলা ব্যাংকের অ্যাপস ব্যবহার করে 
  • নিকটস্থ এটিএম বুথের মাধ্যমে এটিএম কার্ড দিয়ে 
  • সরাসরি ব্যাংকে গিয়ে ম্যানেজারের সাথে যোগাযোগ করে 
  • নেক্সাস পে অ্যাপ অ্যাপস এর মাধ্যমে 
  • মোবাইল কোড ডায়াল করার মাধ্যমে

 

এছাড়াও বিভিন্ন পদ্ধতিতে আপনারা ডাচ-বাংলা ব্যাংক একাউন্টের ব্যালেন্স চেক করতে পারবেন।

ডাচ বাংলা ব্যাংকের একাউন্ট চেক করার কোড

ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট চেক করার কোড হল *322# এইট কোড ব্যবহার করে সকল তথ্য এবং ব্যাংকের ব্যালেন্স সম্পর্কে জানতে পারবেন। ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম সম্পর্কে জানতে চাইলে উপরের লেখাগুলো মনোযোগ দিয়ে পড়ুন।

ডাচ বাংলা ব্যাংকের হেল্পলাইন নাম্বার

যেকোনো প্রয়োজনে অথবা ডাচ বাংলা ব্যাংক সম্পর্কিত যেকোনো তথ্যের জন্য যোগাযোগ করতে পারেন ডাচ বাংলা ব্যাংকের হেল্প লাইন নাম্বারে- ডাচ বাংলা ব্যাংকের হেল্প লাইন নাম্বার হল 16216 ।

ডাচ বাংলা ব্যাংক সম্পর্কিত যেকোনো তথ্যের জন্য উল্লেখিত নাম্বারে যোগাযোগ করুন। প্রতি মিনিট 2 টাকা 30 পয়সা চার্জ প্রযোজ্য হবে। 

এই ব্যাংকের সেবা সম্পর্কে কোন অভিযোগ জানাতে কল করুন (8802)-9511993 উক্ত নাম্বারে অথবা সরাসরি ইমেইল করতে পারেন ccs.cmc@dutchbanglabank.com এই ঠিকানায়।

ডাচ-বাংলা ব্যাংক প্রশ্ন উত্তরঃ

ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খুলতে কত টাকা লাগে 

ডাচ বাংলা ব্যাংকে একটি একাউন্ট খুলতে সেভিং একাউন্ট এর ক্ষেত্রে নূন্যতম ৫০০ টাকা। স্টুডেন্ট একাউন্ট এর ক্ষেত্রে ন্যূনতম ১০০ জমা করতে হবে।

ডাচ-বাংলা ব্যাংক সেভিংস একাউন্ট খুলতে কত টাকা লাগে?

ডাচ-বাংলা ব্যাংক সেভিংস অ্যাকাউন্ট খুলতে ন্যূনতম জমার পরিমাণ 500 টাকা। 

তবে একাউন্ট খুললে ন্যূনতম 1000 টাকা জমা দিতে হবে। যার ৫০০ টাকা ব্লক থাকবে। এবং অবশিষ্ট ৫০০ টাকা উত্তোলন বা ব্যবহার করতে পারবেন।

১৮ বছরের কম বয়সীদের কিভাবে ব্যাংক একাউন্ট খুলব 

১৮ বছরের কম বয়সীদের জন্য তার অভিভাবকের সাথে যৌথ একাউন্ট খুলতে হবে। 

তাদের যৌথ স্বাক্ষর একাউন্টে লেনদেন পরিচালিত হবে। হিসাব গ্রহীতার বয়স ১৮ হলে তিনি একাই হিসেবে পরিচালনা করতে পারবেন।

আরো পড়ুন: ইসলামী ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম

Tag: ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম,ডাচ বাংলা ব্যাংক সেভিংস একাউন্ট খোলার নিয়ম,ডাচ বাংলা ব্যাংক,ডাচ বাংলা ব্যাংক সেভিংস একাউন্ট এর সুবিধা,ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২২,ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট,ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট চেক,ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খুলতে কি কি লাগে,ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট খুলতে আপনার কি কি কাগজ লাগবে,ডাচ বাংলা ব্যাংক মোবাইল একাউন্ট খোলার নিয়ম,ব্যাংক একাউন্ট খুলতে কি কি লাগে,ডাচ বাংলা ব্যাংকের মোবাইল একাউন্ট কিভাবে খুলতে হয়

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here